জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন – জন্ম নিবন্ধন চেক

আপনার কাছে যদি একটি জন্মনিবন্ধন কার্ড থেকে থাকে তাহলে আপনি নিশ্চয়ই কোনো এক সময় এই জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নিতে চাইবেন।

আপনার জন্ম নিবন্ধন ইনফরমেশনগুলো ইন্টারনেটে রয়েছে কিনা, কিংবা আপনাকে দেখানো যে সমস্ত ইনফরমেশন রয়েছে, সেগুলোর সঠিক কিনা সেটা দেখে নেয়ার প্রয়োজন হয়।

অনলাইনে ঘরে বসে কিভাবে আপনি চাইলে খুব সহজেই জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নিতে পারবেন কিংবা অনলাইন জন্ম নিবন্ধন চেক করে নিতে পারবেন? সেটি দেখে নিতে এই আর্টিকেলটি কন্টিনিউ করতে থাকুন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম

আপনি যদি চান তাহলে মাত্র দুইটি পদ্ধতি অনুসরণ করার মাধ্যমে খুব সহজে ঘরে বসে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন আবেদন করার কাজ সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন অনলাইন যাচাই করে নেয়ার জন্য আপনাকে সর্ব প্রথমে যে কাজটি করতে হবে সেটি হল, জন্মনিবন্ধনের যে ওয়েব পোর্টাল রয়েছে সেটার সহায়তা নিতে হবে।

ধাপ ১ঃ জন্ম নিবন্ধন এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইট

অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার জন্য আপনাকে সর্বপ্রথম এবং সর্বপ্রধান হিসেবে যে কাজটি করতে হবে সেটা হল জন্ম নিবন্ধনের ওয়েবসাইটে ভিজিট করা।

নিম্নলিখিত লিংকে ক্লিক করার মাধ্যমে আপনি আপনার নির্দিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবেন এবং জন্মনিবন্ধনের ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে পারবেন।

[su_button url=”https://everify.bdris.gov.bd/” background=”#2d7cef” size=”6″ icon=”icon: search” text_shadow=”0px 0px 0px #faf9f9″] Jonmo Nibondon Check[/su_button]

উপরে উল্লেখিত লিংকে ভিজিট করার পরে, আপনার সামনে নিম্নলিখিত স্ক্রীনশটএর মত একটি পেজ ওপেন হবে যেখানে অনেকগুলো ভিন্ন বক্স দেয়া থাকবে যেগুলো আপনাকে ফিলাপ করতে হবে।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন - জন্ম নিবন্ধন চেক

ধাপ ২ঃ ইনফরমেশন দিয়ে বক্স ফিলাপ করা

এবার আপনি যে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নিতে চান সেই জন্মনিবন্ধনের যে সমস্ত ইনফরমেশন রয়েছে, সেখান থেকে জন্ম নিবন্ধন নাম্বার এবং জন্মতারিখ দেয়ার মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন সফলভাবে চেক করে নিতে পারবেন।

বক্সগুলো ভালোভাবে ফিলাপ করে নেয়ার জন্য নিম্নলিখিত ইনফরমেশনের দিকে লক্ষ্য রাখতে পারেন।

Birth Registration Number: এখানে যে প্রথম বক্স হয়েছে অর্থাৎ এই প্রথম বক্সে নাম হল বার্থ রেজিস্ট্রেশন নাম্বার দেয়ার বক্স।

এখানে আপনাকে আপনার জন্ম নিবন্ধন এর নাম্বার যথাযথভাবে বসিয়ে দিতে হবে। প্রায় প্রত্যেক জন্ম নিবন্ধন এর উপরে ১৭ ডিজিটের একটি জন্ম নিবন্ধন নাম্বার দেয়া থাকে, যা সকল জন্ম নিবন্ধন নাম্বার চেয়ে ভিন্ন হয়ে থাকে।

আপনি যদি আপনার জন্ম নিবন্ধনের জন্য এই ১৭ ডিজিটের নাম্বার টি বেছে নিতে চান, তাহলে নিম্নলিখিত স্ক্রিনশট এর দিকে লক্ষ্য রাখতে পারেন এবং এই একই জায়গায় জন্ম নিবন্ধন নাম্বারটি পেয়ে যেতে পারেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন - জন্ম নিবন্ধন চেক

১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার সংগ্রহ করে তারপরে প্রথম বক্সে যথাযথভাবে বসিয়ে দিন।

Date of Birth: আপনি যে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নিতে চান, সেই জন্ম নিবন্ধন এর যে জন্ম তারিখ রয়েছে, সেই জন্ম তারিখ দ্বিতীয় বক্সে বসিয়ে দিতে হবে।

[su_note radius=”10″]জন্ম তারিখ ফরমেট হবেঃ বছর- মাস- দিন। উদাহরন হিসেবে বলতে গেলে এটা বলতে হবে যে আপনার জন্ম তারিখ যদি, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০০০ হয়ে থাকে তাহলে সেটি বসাতে হবে এই ফরম্যাটেঃ 2000-08-18[/su_note]

আপনার জন্ম নিবন্ধন এর যে জন্ম তারিখ রয়েছে, সেই জন্ম তারিখ উপরে উল্লেখিত নিয়মে ভালোভাবে বসিয়ে দিন।

The answer is: এবার একদম সর্বশেষ বক্সে আপনাকে রিক্যাপচা পুরণ করতে হবে। আপনাকে উপরের ছবিতে যে সহজ অংকের সমাধান দিতে বলবে সেই অংকের সমাধান লিখে দিতে হবে।

প্রত্যেকটি বক্স ভালোভাবে ফিলাপ করে নেয়ার পরে একদম সর্বশেষে “Search” নামের যে বাটন দেখতে পাবেন, সেই বাটন এর উপরে ক্লিক করে দিন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই অনলাইন - জন্ম নিবন্ধন চেক

আপনার দেয়া প্রত্যেকটা ইনফর্মেশন যদি সঠিক হয়ে থাকে তাহলে সার্চ বাটনে ক্লিক করার পরবর্তী পেজে আপনার জন্ম-নিবন্ধন নাম্বারটি দিয়ে সার্চ করেছেন, সেই রিলেটেড যাবতীয় তথ্য দেখে নিতে পারবেন।

উপরে উল্লেখিত উপায়ে আপনি চাইলে খুব সহজেই, কয়েক মিনিটে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন চেক করে নিতে পারবেন।

এবার এখানে থাকা প্রত্যেকটি ইনফরমেশন যদি সঠিক হয়ে থাকে তাহলে আপনি নির্দ্বিধায় থাকতে পারেন। কারণ যদি ইনফর্মেশন ভুল হয়ে যায় তাহলে জন্মনিবন্ধন পরিবর্তন করার প্রয়োজন পড়তে পারে।

এছাড়াও এখানে সার্চ করার পরে আপনি যদি ডকুমেন্ট পেয়ে যান, তাহলে এটা নিশ্চিত হতে পারেন যে আপনার জন্ম নিবন্ধনের ইনফর্মেশন বাংলাদেশ সরকারি ডাটাবেজের যথাযথভাবে সুরক্ষিত আছে।

উপরে উল্লেখিত উপায়ে আপনি চাইলে ১৭ ডিজিটের যে সমস্ত জন্ম নিবন্ধন নাম্বার রয়েছে, প্রত্যেকটি জন্ম নিবন্ধন নাম্বারের জন্য জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নিতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন ১৬ ডিজিটের হলে কিভাবে যাচাই করবেন?

পূর্বে যে সমস্ত জন্মনিবন্ধন কার্ড রয়েছে প্রায় প্রত্যেকটি জন্ম নিবন্ধন কার্ডের জন্ম নিবন্ধন নাম্বার ১৭ সংখ্যার বদৌলতে ১৬ সংখ্যা দিয়ে পরিপূর্ণ করা।

কিন্তু আপনি যদি লক্ষ্য করেন তাহলে দেখতে পারবেন, অনলাইনের মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন চেক করে নেয়ার জন্য ওয়েবসাইট রয়েছে, সেখানে আপনি শুধু মাত্র ১৭ ডিজিটের নাম্বারের জন্য জন্ম নিবন্ধন অনলাইন চেক করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার যদি ১৬ ডিজিটে হয়ে থাকে তাহলে সেটি কিভাবে চেক করবেন? এটা চেক করার জন্য আপনাকে একটি টেকনিক খাটাতে হবে। আর এই টেকনিক নিচে ভালোভাবে বর্ণনা করা হলো।

আপনার জন্ম নিবন্ধন যদি ১৬ ডিজিটে হয়ে থাকে তাহলে আপনাকে আপনার জন্ম নিবন্ধন হাতে নিতে হবে। এবার আপনার জন্ম নিবন্ধনের সর্বশেষ ৫ সংখ্যার পূর্বে, অতিরিক্ত একটি ০ বসিয়ে দিতে হবে।

সর্বশেষ ৫টি সংখ্যা বলতে আমি কি বুঝিয়েছি সেটা ভালভাবে বুঝার জন্য আপনি চাইলে নিম্নলিখিত ছবির দিকে লক্ষ্য রাখতে পারেন।

উপরে যেভাবে সর্বশেষ ৫টি সংখ্যার পূর্বে একটি শুন্য বসিয়ে দিয়ে জন্ম নিবন্ধনের ১৭ ডিজিট সম্পন্ন করা হয়েছে, ঠিক সেভাবে আপনি আপনার জন্ম নিবন্ধনের ১৭ ডিজিট সম্পন্ন করে নিন।

যখন আপনি আপনার জন্ম নিবন্ধন ১৬ ডিজিট থেকে ১৭ ডিজিট করে নিতে সক্ষম হবেন, তখন আপনি চাইলে অনলাইনের মাধ্যমে উপরে উল্লেখিত নিয়মে খুব সহজে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নিতে পারবেন।

জন্ম নিবন্ধন যাচাই নিয়ে কিছু প্রশ্ন এবং উত্তর

এবার তাহলে জেনে নেয়া যাক অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন চেক করা নিয়ে কমন কিছু প্রশ্ন এবং উত্তর।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন পাওয়া না গেলে কি করবেন?

আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন চেক করেন তাহলে অনেক সময় নানা জটিলতার কারণে অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন ইনফর্মেশন খুঁজে নাও পেতে পারেন।

এবার অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন চেক করে নেয়ার সময় আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন ইনফর্মেশন খুঁজে না পান তাহলে তার সম্ভাব্য কারণ কি হতে পারে? এর একটি কারণ হতে পারে আপনার দেয়া তত্ত্বের মধ্যে ঘাটতি এবং অন্যটি হলো আপনার জন্ম নিবন্ধন অনলাইন না হওয়া।

এবার আপনার জন্ম নিবন্ধন তথ্য যদি ঠিক থাকে তাকে এবং তার পরেও আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন রিলেটেড তথ্য খুঁজে না পান, তাহলে আপনাকে ইউনিয়ন পরিষদের যোগাযোগ করতে হবে জন্ম নিবন্ধন অনলাইন হয়েছে কিনা সেটি জানার জন্য।

কিভাবে অনলাইনের মাধ্যমে খুব সহজে জন্ম নিবন্ধন চেক করে নেবেন এবং জন্ম নিবন্ধন ১৭ ডিজিটের না হয় তাহলে সেটা ১৭ ডিজিটের বানিয়ে কিভাবে চেক করবেন সেটি রিলেটেড তথ্য উপরে আলোচনা করা হলো।

এছাড়াও জন্ম নিবন্ধন রিলেটেড আপনার যদি আর কোন প্রশ্ন থেকে থাকে, তাহলে আপনি চাইলে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানাতে পারেন।

তাহলে আমরা খুব শীঘ্রই আপনার কমেন্টের রিপ্লাই নিয়ে আপনার সামনে হাজির হব।

আশা করি, এই আর্টিকেল থেকে কিভাবে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নিতে হয় সেই রিলেটেড বিস্তারিত তথ্য জেনে নিতে পেরেছেন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top