১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই করার নিয়ম

আপনার কাছে যদি ১৬ ডিজিটের একটি জন্ম নিবন্ধন কার্ড থেকে থাকে তাহলে আপনি কিভাবে ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে পারবেন?

কারন, অনেকেই ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন Check করতে গিয়ে হিমশিম খেয়ে যান। এবং পরিশেষে ব্যর্থ হয়ে অনলাইনের মাধ্যমে সেটি যাচাই করতে সক্ষম হন না।

তবে আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে সফলভাবে ১৭ ডিজিটের কম জন্ম নিবন্ধন কার্ড যাচাই করে নিতে চান, তাহলে এই আর্টিকেলটি দেখার মাধ্যমে সেই রিলেটেড কার্যক্রম সম্পন্ন করতে পারেন।

১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই করতে কি সমস্যা হয়?

আপনি যদি অনলাইন থেকে জন্ম নিবন্ধন এর যেকোন রকমের কার্যক্রম করতে চান, তাহলে আপনাকে অবশ্যই আপনার জন্ম নিবন্ধন কার্ড টি ১৭ ডিজিটের রূপান্তর করতে হয়।

অর্থাৎ জন্মনিবন্ধনের যে কার্ড রয়েছে সেটি সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী ১৭ ডিজিটের হয়ে থাকে। এছাড়াও জন্ম নিবন্ধন ওয়েবসাইট এর নতুন লিংকে যে তথ্যগুলো আপনি ইনপুট করতে পারবেন সেগুলো ১৭ ডিজিট ফরমেটে করা।

সেজন্য, ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন Check করতে গিয়ে অনেকেরই সমস্যা দেখা দেয় এবং সফলভাবে সেটি সম্পন্ন করতে পারেন না।

তবে আপনি যদি একটি পদ্ধতি অনুসরণ করেন তাহলে সেই কাজটি খুব সহজেই সম্পন্ন করতে পারেন। কি সেই পদ্ধতি? যার মাধ্যমে ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন কার্ড Check  করা সম্ভব?

১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই

আপনি যদি ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নিতে চান তাহলে আপনাকে একটি ট্রিকস অবলম্বন করতে হবে। অর্থাৎ এক্ষেত্রে আপনার ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন কার্ড ১৭ ডিজিটের রূপান্তর করতে হবে।

রূপান্তর করার যে পদ্ধতি রয়েছে সেটি রীতিমতো সহজ একটি পদ্ধতি। এবং কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই সেই কাজটি সম্পন্ন করে নেয়া সম্ভব।

সেজন্য আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন কার্ড ১৬ ডিসটিকে ১৭ ডিজিটের রূপান্তর করতে চান, তাহলে নিম্নলিখিত আর্টিকেলটি দেখে নেয়ার মাধ্যমে সে কাজটি সফলভাবে সম্পন্ন করতে পারেন।

জেনে নিনঃ জন্ম নিবন্ধন ১৬ ডিজিটের ১৭ ডিজিট করার নিয়ম

উপরে উল্লেখিত আর্টিকেলটি দেখে নিলে কয়েক সেকেন্ডের মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই জন্ম নিবন্ধনের কার্ড ১৭ ডিজিটের রূপান্তর করতে পারবেন।

যখনই আপনার জন্ম নিবন্ধন কার্ড ১৭ ডিজিটের রূপান্তর করার কাজ সফলভাবে সম্পন্ন হয়ে যাবে, তারপরে আপনি চাইলে এখন জন্ম নিবন্ধন কার্ড অনলাইনে যাচাই করে নিতে পারবেন।

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নেয়ার জন্য আপনাকে প্রথমত নিম্নলিখিত লিংকে ভিজিট করতে হবে। এবং তারপরে নির্দিষ্ট তথ্য দেয়ার মাধ্যমে জন্ম নিবন্ধন যাচাই করে নেয়ার কাজ সম্পন্ন করতে হবে।

[su_button url=”https://everify.bdris.gov.bd/” background=”#2d7cef” size=”6″ icon=”icon: refresh” text_shadow=”0px 0px 0px #faf9f9″]যাচাই করুন[/su_button]

 

উপরে উল্লেখিত লিংকে ভিজিট করার পরে আপনার জন্ম নিবন্ধন নাম্বার জন্ম তারিখ এবং রি-ক্যাপচা পূরণ করার মাধ্যমে খুব সহজেই আপনার জন্ম নিবন্ধন রিলেটেড তথ্য দেখে নিতে পারবেন।

কিভাবে খুব সহজেই ১৬ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন Check করতে হয় সেই রিলিজের যাবতীয় তথ্য উপরে আলোচনা করা হলো।

এছাড়াও আপনি যদি জন্ম নিবন্ধন সম্পর্কিত কোনো রকমের সমস্যার মধ্যে পতিত হন, তাহলে কমেন্ট বক্সের মাধ্যমে আমাদেরকে জানাতে পারেন।

এতে করে আমরা খুব তাড়াতাড়ি আপনার সমস্যা সমাধান নিয়ে হাজির হব।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top